۶ مهر ۱۴۰۱ |۲ ربیع‌الاول ۱۴۴۴ | Sep 28, 2022
হুজ্জাতুল ইসলাম ফারহাজাদে
হুজ্জাতুল ইসলাম ফারহাজাদে

হাওজা / আমেরিকাতে আশুরার দিন, ইমাম হোসাইন (আ.) এর শোক সংস্থা ২০,০০০ লোককে খাওয়ায় আর লন্ডনে আশুরার দিনে ৪০টি মোড় বন্ধ থাকে, আমরা বিশ্ববাসীকে আশুরা সম্পর্কে সচেতন করেছি একইভাবে হযরত আলী (আ.) ও গাদীরকে যতটা সম্ভব জুলুম থেকে মুক্ত করা আমাদের কর্তব্য।

হাওজা নিউজ বাংলা রিপোর্ট অনুযায়ী, ইসলাম প্রচার সংস্থার কনফারেন্স হলে গাদির আওয়ামী কমিটি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ইমাম সাদিক (আ.)-এর একটি হাদিস উদ্ধৃত করে হুজ্জাতুল ইসলাম ফারহাজাদে বলেন, আপনি কি মনে করেন যে আল্লাহ পৃথিবীতে কাউকে গাদীরের চেয়ে বেশি রিজিক দেন?! না; আল্লাহর কসম, না; আল্লাহর কসম, না; আল্লাহর কসম। গাদিরকে অবহেলা করা হয়েছে, সেদিকে লক্ষ দিতে হবে। যদি সমাজে হযরত আলীর বেলায়েত প্রচলিত হয়ে যায়, তাহলে সব মন্দ কাজ নেকিতে পরিণত হবে।

হুজ্জাতুল ইসলাম ফারহাজাদে বলেন, গাদিরের পুনরুজ্জীবন খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং এটিকে অবহেলা করা উচিত নয়। গাদীরের বিপরীতে একদিনের খাবার এবং খাওয়ানোর উপর কোন জোর নেই আর সেই দিনে একজন মুমিনকে খাওয়ানো এক লাখ চব্বিশ হাজার নবী ও মুমিনকে খাওয়ানোর সমতুল্য আর গাদীরের রেওয়ায়েত অনুযায়ী তা শব-ই-কদরের চেয়েও বড়।

হুজ্জাতুল ইসলাম ফারহাজাদে, আমির আল-মুমিনীনের বিশুদ্ধ চিন্তাধারাকে প্রতিহত করার জন্য ওহাবীদের ঘৃণ্য পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে বলেন, শত্রুরা যেভাবে ইমাম আলী (আ.)-এর বেলায়েতের উপর আক্রমণ করেছে, সেই ভাবে তৌহিদ ও রেসালতের উপরও হামলা হয় নি। এটি আমির আল-মুমিনীনের অনন্য অবস্থান জাহির করে যার উপর জোর দেওয়া উচিত।

গাদির পাবলিক কমিটির প্রধান গাদিরের অবস্থানের উপর জোর দিয়ে বলেন, হজরত জাহরা (স.) বলেছেন, গাদিরের পর কারো জন্য আর কোনো অজুহাত অবশিষ্ট নেই। গাদীরকে অত্যাচার ও জনশূন্যতা থেকে বের করে আনা এবং এই মহান দিনটিকে প্রচার করা আমাদের সকলের কর্তব্য।

تبصرہ ارسال

You are replying to: .
7 + 0 =