۲۴ تیر ۱۴۰۳ |۷ محرم ۱۴۴۶ | Jul 14, 2024
কাজের ফাঁড়া কাটানো ও দারিদ্র্যমুক্ত হওয়ার দোয়া ও আমল
কাজের ফাঁড়া কাটানো ও দারিদ্র্যমুক্ত হওয়ার দোয়া ও আমল

হাওজা / ফজরের নামাযের পর দশবার এই দোয়াটি পড়ুন।

হাওজা নিউজ এজেন্সি রিপোর্ট অনুযায়ী, জনৈক ব্যক্তি হযরত ইমাম কাযিম (আ.)-এর খেদমতে উপস্থিত হলেন এবং তাঁর নিকট নিজের কাজে বাঁধাগ্রস্থতা ও সমস্যাবলী উল্লেখপূর্বক নিরুপায় অনুযোগ করলেন, 'হে ইমাম! আমার কাজ বন্ধ এবং আমি যা-ই করি না কেন তাতে কোনো লাভ হয় না, আর যা-ই করি না কেন তাতে আমার চাহিদা ও অভাব পূরণ হয় না, আমার কি করা উচিত?

হজরত মুসা ইবনে জাফর (আ.) লোকটিকে বললন, "ফজরের নামাযের পর দশবার এই দোয়াটি পাঠ করবে-

«سُبْحانَ اللَّهِ الْعَظیمِ وَ بِحَمْدِهِ اَسْتَغْفِرُاللَّهَ وَ اَسْئَلُهُ مِنْ فَضْلِهِ»

উচ্চারণ: সুবহানাল্লাহিল আযীমি ওয়া হামদিহী আস্তাগফিরুল্লাহা ওয়া আস'আলুহূ মিন্ ফাদ্ব্লিহ্!

অর্থ: মহান আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তাআ'লার পবিত্রতা ঘোষণা করছি এবং তাঁর (মহান সত্তার) প্রশংসা করছি; তাঁর নিকটই আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি এবং আমি কেবল তাঁর কাছেই (অশেষ ও অফুরন্ত) অনুগ্রহ ও করুণা প্রাপ্তির (আকুল) প্রার্থনা করছি!

বর্ণনাকারী ঐ ব্যক্তি বলেন, 'আমি বেশ কিছুদিন সকালে এই দোয়াটি নিয়মিত পড়লাম, (অতঃপর একদিন) আমার গ্রামের বেশ কয়েক জন মানুষ আমার কাছে এসে বলল, 'তোমার আত্মীয়দের মধ্য থেকে একজন লোক মারা গিয়েছে এবং তুমি ছাড়া তার (ধন-সম্পদের) আর কোনো উত্তরাধিকারী নেই!' আর এভাবেই আমি অনেক ধন-সম্পদের মালিক এবং অভাব মুক্ত হয়ে গেলাম!

[বিহারুল আনওয়ার, খন্ড- ৫৭, পৃষ্ঠা- ১৯৯]

تبصرہ ارسال

You are replying to: .