۲۴ تیر ۱۴۰۳ |۷ محرم ۱۴۴۶ | Jul 14, 2024
ছবির ক্যাপশন- ইহুদিবাদী ইসরায়েলের চ্যানেল সেভেন টিভি জানিয়েছে তাদের সেনাবাহিনীর ৭০ হাজার সদস্য পঙ্গু হয়ে গেছে।
ইহুদিবাদী ইসরায়েলের চ্যানেল সেভেন টিভি জানিয়েছে তাদের সেনাবাহিনীর ৭০ হাজার সদস্য পঙ্গু হয়ে গেছে।

হাওজা / ইহুদিবাদী ইসরায়েলের ৭০ হাজার সেনা পঙ্গু।

হাওজা নিউজ এজেন্সি রিপোর্ট অনুযায়ী, ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইহুদিবাদী দখলদার ইসরায়েলি আগ্রাসন ও গণহত্যার ৯ মাস অতিক্রান্ত হয়েছে কোনো রকম অর্জন ছাড়াই। উল্টো বরং তেল আবিবের জন্য সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহ করা এবং সেনাদের রক্ষণাবেক্ষণের ব্যাপারে সংকটের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

ইতিমধ্যেই গাজার বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধ নিজেদের শোচনীয় পরাজয়ের কথা স্বীকার করে ইহুদিবাদী অবৈধ রাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট বলেছেন যে, "আমরা যে কঠিন যুদ্ধের মুখোমুখি হচ্ছি তা আশ্চর্যজনক এবং আমরা এর জন্য একটি ভারী মূল্য পরিশোধ করছি; একটি অভূতপূর্ব ও কল্পনাতীত মূল্য!" এরই মধ্যে অবৈধ ও দখলদার সরকার যুদ্ধের খরচ ও অভ্যন্তরীণ ব্যয় মেটাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য বন্ধুপ্রতিম দেশের কাছে আর্থিক সাহায্যের অনুরোধ করেছে।

ইহুদিবাদী ইসরায়েলের 'চ্যানেল সেভেন' টিভির উদ্ধৃতি দিয়ে পার্সটুডে জানিয়েছে যে, ৭ অক্টোবর গাজা যুদ্ধ শুরুর পর আহত ৮ হাজার ৬৬৩ জনসহ ইসরায়েলি সেনাবাহিনীতে পঙ্গু সদস্যের সংখ্যা প্রথমবারের মতো ৭০ হাজার ছাড়িয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে শতকরা ৩৫ ভাগ ইসরায়েলি সেনা ৭ অক্টোবরের পর মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছে এবং শতকরা ২১ ভাগ সেনা শারীরিকভাবে আহত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। ইসরায়েল সরকারের যুদ্ধ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে তারা চলতি বছরের শেষ নাগাদ আরও প্রায় ২০ হাজার নতুন আহত সেনা সদস্যকে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ইসরায়েলি টিভি চ্যানেল সেভেন-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে: প্রতি মাসে এক হাজারেরও বেশি নতুন আহত পুরুষ ও মহিলাকে চিকিৎসার জন্য এই বিভাগে ভর্তি করা হয় আহতদের শতকরা ৯৫ ভাগ পুরুষ। তাদের প্রায় শতকরা ৭০ ভাগই রিজার্ভ সেনা।

ইসরায়েলি বিশেষজ্ঞদের বিশ্লেষণ অনুসারে, আহতদের মধ্যে শতকরা প্রায় ৪০ ভাগ যারা ২০২৪ সালের শেষ নাগাদ হাসপাতালে ভর্তি হবে তারা উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা, বিষণ্নতা, আঘাত পরবর্তী মানসিক চাপসহ বিভিন্ন মানসিক সমস্যার সম্মুখিন হতে পারে।

উল্লেখ্য যে, ইসরায়েলি অপরাধের জবাবে ৭ অক্টোবর ২০২৩ সালে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ গোষ্ঠীগুলি গাজা উপত্যকা থেকে "আল-আকসা ঝড়" অভিযান শুরু করেছিল। ইসরায়েল তাদের ওই পরাজয়ের গ্লানি মেটাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ কিছু পশ্চিমা দেশের পূর্ণ সমর্থন ও সহায়তা নিয়ে গাজার ক্রসিং বন্ধ করে দেয় এবং নিরীহ গাজাবাসীদের ওপর নির্মমভাবে বোমাবর্ষণ করে।

تبصرہ ارسال

You are replying to: .