۲۴ تیر ۱۴۰۳ |۷ محرم ۱۴۴۶ | Jul 14, 2024
মুখেই গর্জন-বর্জন এরদোগানের
ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু (বামে) ও তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান (ডানে)

হাওজা / তৃতীয় দেশ হয়ে ইসরায়েলে যাচ্ছে তুরস্কের পণ্য

হাওজা নিউজ এজেন্সি রিপোর্ট অনুযায়ী, ফিলিস্তিনের রাফায় আগ্রাসনের জেরে গত মে মাসে ইসরায়েলের সঙ্গে সব ধরনের বাণিজ্য বন্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে তুরস্ক। তবে এই নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও গ্রিসের মতো তৃতীয় দেশগুলোর মাধ্যমে ইসরায়েলে পৌঁছে যাচ্ছে তুরস্কের পণ্য।

ইসরায়েলের কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান ব্যুরোর (সিবিএস) তথ্য বলছে, গত মে মাসে তুরস্ক থেকে ১১৬ মিলিয়ন ডলারের পণ্য আমদানি করেছে ইসরায়েল। তবে এই সংখ্যা আগের বছরের মে মাসের তুলনায় ৬৯ শতাংশ কম।

অন্যদিকে তুর্কি এক্সপোর্টার্স অ্যাসেম্বলি (টিআইএম) জানিয়েছে, মে মাসে ইসরায়েলে ৪ মিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছে তারা। এই সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় ৯৯ শতাংশ কম।

দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য পরিচালনাকারী দুই তুর্কি ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, মে মাসের শুরু থেকে তুরস্কের পণ্য গ্রিস ও আশপাশের অন্যান্য দেশের মধ্য দিয়ে ইসরায়েলে পৌঁছানো হয়েছে। গাজায় স্থায়ী যুদ্ধবিরতি না হওয়া পর্যন্ত ইসরায়েলের ওপর আঙ্কারা ঘোষিত বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর এই পরিবর্তন এসেছে।

তবে প্রশ্ন করলে এক তুর্কি ব্যবসায়ী নেতা দাবি করেছেন, তুরস্ক বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার আগে ইসরায়েল যেসব পণ্য অর্ডার করেছিল সেসব পণ্যই এখন গ্রিস হয়ে ইসরায়েলে যাচ্ছে, নতুন পণ্য নয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই তুর্কি ব্যবসায়ী নেতাকে নিষেধাজ্ঞার পরের নতুন কিছু অর্ডার ও পণ্য খালাসের ব্যবসায়িক নথিপত্র দেখিয়ে তার সত্যতা জানতে চাইলে তিনি তা এড়িয়ে যান!

সূত্র: মিডলইস্ট আই

تبصرہ ارسال

You are replying to: .